o+ এক ব্যাগ রক্তের দাম কত | ও পজেটিভ রক্তের দাম কত

রক্ত অস্বচ্ছ লাল পদার্থটি শরীরের অভ্যন্তরীণ এক পরিবহক মাধ্যম। রক্তকণিকা বাহিত হয় শিরা বা ধমনীর মাধ্যম দিয়ে। দেহের প্রতিটি টিস্যুতে পৌঁছে দেয় খাবারো অক্সিজেন। শিশুর বৃদ্ধি ও ক্ষয়রোধের জন্য এই খাবার ও অক্সিজেন অপরিহার্য। এছাড়াও দেহের বিভিন্ন গ্রন্থী থেকে নিঃসরিত হরমোন রক্তের মাধ্যমে পৌঁছে যায় অঙ্গ-প্রত্যঙ্গে, নিশ্চিহ্নিত করে ওই অঙ্গের কর্ম ক্ষমতা কে। রক্ত মানব দেহের একটি গুরুত্বপূর্ণ তরল পদার্থ যে পদার্থটির দ্বারা মানুষ দৈনন্দিক কাজের সকল কাজকর্ম করে থাকেন। মানুষের দেহে শক্তি জাগায় শুধুমাত্র রক্তকণিকা। তাই আজকের এই প্রতিবেদনটিতে তুলে ধরব, রক্ত নিয়ে বিভিন্ন রকম তথ্য যারা রক্ত সম্পর্কে নানা রকম তথ্য সংগ্রহ করতে ব্যস্ত। শুধুমাত্র তাদের জন্যই খুবই গুরুত্বপূর্ণ হতে চলেছে আমাদের এই নিবন্ধনটি।

বর্তমান সমাজে রক্ত নিয়ে মানুষ নানা রকম চিন্তায় আবদ্ধ। অনেকেই আছেন যারা স্বচ্ছ রক্ত সংগ্রহ করতে ব্যস্ত। আবার অনেকে আছেন যারা রক্তদান করতেই ব্যস্ত। মুমূর্ষ রোগীদের ক্ষেত্রে অনেক সময় জরুরী ভিত্তিতে রক্তের প্রয়োজন হয় তখন সাধারণত মানুষ ব্লাড ব্যাংক গুলোতে যোগাযোগ করার চেষ্টা করে। আপনিও যদি মুমূর্ষ রোগীদের জন্য রক্ত সংগ্রহ করতে চান বা আপনার রক্তের প্রয়োজন হয় অবশ্যই ব্লাড ব্যাংক গুলোতে যোগাযোগ করতে পারেন। এছাড়াও চাইলে আপনি রক্ত সংগ্রহ করতে পারেন বা রক্ত ক্রয় করতে পারেন। কিভাবে আপনারা রক্ত ক্রয় করবেন বার রক্ত সংগ্রহ করবেন তা নিয়ে আমাদের আজকের বিস্তারিত তথ্যগুলো।

ও পজেটিভ রক্তের দাম কত

প্রিয় ভিজিটর আমাদের শরীরের মধ্যে যে সকল রক্ত কণিকা রয়েছে সকলেরই রক্তকণিকা একই হতে পারে আবার ভিন্ন হতে পারে। আমাদের শরীরে বা মানুষ জাতি শরীরে কয়েকটি গ্রুপের রক্ত নির্বাহ করে। আপনি যদি আপনার রোগীদের জন্য রক্ত সংগ্রহ করতে চান তাহলে অবশ্যই তার রক্তের গ্রুপ টেস্ট করে রক্ত সংগ্রহ করতে হবে এবং যার রক্ত সংগ্রহ করবেন সেই রক্ত অবশ্যই এবং ফ্রেশ হতে হবে। বিভিন্ন প্রয়োজনে অনেক মানুষ আছেন যারা ইমার্জেন্সি বা জরুরী ভিত্তিতে রক্ত সংগ্রহ করতে ব্যস্ত তাই তারা রক্তের দাম সম্পর্কে জানা রাজ্য প্রকাশ করেন বিভিন্ন অনলাইন মিডিয়াগুলোতে। আজকে আমরা এই নিবন্ধনটিতে তুলে ধরার চেষ্টা করব রক্তের দাম সম্পর্কে।

ও পজিটিভ এক ব্যাগ রক্তের দাম ১৫০০-১৭০০ টাকা

হোল ব্লাড:

(মানে যেটা হতে রক্তের কোনো কনিকা আলাদা করা হয়নি)

দাম : ৮০০-৯০০ টাকা (প্রতি ইউনিট)

#প্লাটিলেট

( রক্ত হতে আলাদা করা শুধু অণুচক্রিকা)

দাম: ১০০০-১২০০ টাকা (প্রতি ইউনিট)

#প্লাজমা

(মানে রক্ত হতে আলাদা করা শুধু রক্তরস)

দাম: ৭০০-৮০০ টাকা (প্রতি ইউনিট)

#পি,আর, বি,সি

( রক্ত হতে আলাদা করা শুধু লোহিত রক্তকনিকা)

দাম: ৭০০-৮০০ টাকা (প্রতি ইউনিট)

বাংলাদেশের গ্রুপ ভিত্তিক রক্তের হার

অনেকেই আছেন যারা রক্ত সম্পর্কে নানা রকম তথ্য সংযোগ করতে ব্যস্ত তাই তারা চিন্তা করেন বাংলাদেশে কত শতাংশ রক্তের গ্রুপের বিভাগ অনুযায়ী রয়েছে। যেহেতু বাংলাদেশে কয়েকটি রক্তের গ্রুপ রয়েছে তাই অবশ্যই আপনাকে কয়েকটি রক্তের গ্রুপ সম্পর্কে জানতে হবে এবং সেই রক্তের গ্রুপ অনুযায়ী কত শতাংশ কত গ্রুপে রয়েছে সেটি সম্পর্কে জানার আগ্রহ প্রকাশ করলে অবশ্যই আপনি আমাদের এই নিবন্ধনটি থেকে সংগ্রহ করতে পারবেন। আমরা গ্রুপের শতাংশর উপর ভিত্তি করে কোন গ্রুপে কত শতাংশ মানুষ রয়েছে সেটি সুন্দরভাবে তুলে ধরার চেষ্টা করছি।

বাংলাদেশের জনগোষ্ঠীর রক্তের গ্রুপভিত্তিক হার
A= ২২.৪৪%, B= ৩৫.২০%, O= ৩৩.৯৭% ও AB= ৮.৩৯%।

 

বাংলাদেশের জনগোষ্ঠীর রক্তের রেসাস ফ্যাক্টর হার
Rhesus Positive = 97.44%, Rhesus Negative = 2.56%

প্রতি ফাটা রক্ততে রয়েছে ২৫০ মিলিয়ন বা ২৫ কোটি লোহিত কণিকা, চার লাখ সেতো কণিকা ও ২৫ মিলিয়ন বা আড়াই কোটি platinate। এই কনিকাগুলো অনুচ্চধলদের রক্তের একতলার প্লাজমার মধ্যে ডুবে থাকে। একজন মানুষের ফুসফুস এবং হৃদপিণ্ড অথবা অক্সিজেন নির্বাহ করার জন্যই রক্তকণিকা কাজ করে থাকে কার্বন ডাই-অক্সাইড খুসখুসে ফিরিয়ে নিয়ে আসে। তাই অবশ্যই মানবদেহের রক্তের গুরুত্ব বিশেষ ভূমিকা রয়েছে আপনি যদি রক্ত সংগ্রহ করতে চান অবশ্যই ব্লাড ব্যাংকগুলোতে যোগাযোগ করতে পারেন।

এছাড়াও কিছু সংস্থার রয়েছে যে সংস্থাগুলোতে সম্পূর্ণ ফ্রিতে বিনামূল্যের রক্ত সেবা দিয়ে যাচ্ছে অনেকেই। আপনি চাইলেই বিভিন্ন সংস্থা থেকে সুন্দর রক্ত এবং ফ্রেশ রক্তগুলোর সংগ্রহ করতে পারেন খুব সহজেই। এরকম সংস্থা গুলো প্রতিটি জেলায় প্রতিটি থানায় প্রতিটি বিভাগে কয়েকটি করে রয়েছে আপনি চাইলে আপনার নিকটস্থ সংস্থাগুলো থেকে বাণিক অসুস্থ কেন্দ্র থেকে রক্ত সংগ্রহ করতে পারেন এবং আপনার মুমূর্ষ রোগীদের কে রক্তদান করে সুন্দর ও স্বচ্ছ জীবন দান করতে পারেন। এছাড়াও আপনি বিনামূল্যে রক্ত দান করার চেষ্টা করবেন এবং মানুষকে উদ্বুদ্ধ করবেন যাতে একটি মুমূর্ষ রোগী আপনার রক্তদানের মধ্যে দিয়ে নতুন জীবন পায়। প্রতিবেদনটি অবশ্যই ভালো লাগলে কমেন্ট করে জানাবেন এছাড়া ও শেয়ার করার চেষ্টা করবেন।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Scroll to Top