গাজা নিয়ে স্ট্যাটাস | গাজা নিয়ে কবিতা | গাজা নিয়ে উক্তি

বর্তমান সময়ে দেশের জন্য উল্লেখযোগ্য সমস্যা হলেন নেশাগ্রস্ত এবং মাদক। আপনি অবশ্যই লক্ষ্য করে দেখবেন যে আপনার বাসার আশেপাশে অথবা আপনার গ্রামের আশেপাশে কিছু সংখ্যক যুবক-যুবতী আছেন যারা নেশায় আসক্ত। তারা গভীরভাবে নেশায় আসক্ত হওয়ার ফলে তাদের চলাফেরা কথাবার্তা তাদের সব ধরনের চলাফেরা এক পরিবর্তন ঘটেছে এবং তাদের দেখে অনেক মানুষ এই হতাশ হয়ে পড়েছে। গ্রামের আশেপাশে মাদক গ্রহণ করা এমন কিছু যুবক যুবতীর অত্যাচারে আমাদের এলাকায় থাকা খুবই কষ্টকর হয়ে দাঁড়িয়েছে এবং আমাদের সমাজ নষ্ট করার জন্য এ সকল নেশা করে এবং গাঁজাখোর ছেলে মেয়েরাই যথেষ্ট। আপনি মনে রাখবেন একটি সমাজকে ধ্বংস করতে নেশায় যথেষ্ট তাই একটি গ্রামকে যদি ধ্বংস করতে চান বা একটি সমাজকে ধ্বংস করতে চান তাহলে তাদেরকে নেশায় আসক্ত করুন।

আজকে আমরা আপনাদের সামনে তুলে ধরার চেষ্টা করব এমন একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় সম্পর্কে যে বিষয়টি অনেকেরই অজানায় এবং সকলেই এ ধরনের তথ্য গুলো সম্পর্কে জানতে আগ্রহী। গ্রামের আশপাশ বসবাস করা এমন যুবক যুবতীদের নেশাগ্রস্থ হওয়ার ফলে তাদের চলাফেরা এবং তাদের আকার ইঙ্গিত দেখে আমরা খুবই কষ্ট পাই। আমাদের সমাজে অনেক মেধাবী ছাত্র-ছাত্রীরা নেশাগ্রস্ত হয়ে পড়েছে এবং তারা নেশায় আসক্ত হয়ে তাদের জীবনকে নষ্ট করে দিচ্ছে তাই তো আজকে আমরা আপনাদের সামনে এমন কিছু নেশাগ্রস্থ ব্যক্তিদের সম্পর্কে কিছু তথ্য তুলে ধরবো যাতে আপনারা খুব সহজেই জানতে পারেন নেশার কুফল সম্পর্কে। এবং নেশাগ্রস্ত সমাজ কিভাবে একটি দেশকে ধ্বংস করতে পারে সেই সম্পর্কে বিভিন্ন তথ্য।

গাজা নিয়ে স্ট্যাটাস

বর্তমান সমাজ হয়ে পড়েছে শাগ্রস্ত অশিক্ষিত এবং দুর্বল সমাজ। এই সমাজ গাঁজায় আসক্ত গাজা এমন একটি মাদক যে মাদকটি গ্রহণ করলে সাধারণ মানুষ সকল স্মৃতি ভুলে থাকতে পারে এবং তারা ঘুমে আসক্ত হয়ে পড়ে। গাজা সেবন করলে তারা খুব দ্রুত ঘুমে আসক্ত হবে এবং তাদের সেন্সলেস হয়ে যাবে তারা কার সাথে কি রকম ব্যবহার করবে সে সম্পর্কে তাদের কোনরকম ধারণা থাকে না। তাইতো তারা গাজা সেবন করে এলাকার মানুষদের উপর অত্যাচার করে এবং তারা ধীরে ধীরে পাগল হয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা থাকে। তাই আমাদের সমাজের সকল মানুষকে সুস্থ এবং সুন্দর রাখতে আমরা চাইলেই সুন্দর একটি স্ট্যাটাস শেয়ার করতে পারি গাজা নিয়ে।

সবচেয়ে বড় তিনটি নেশা হলো হিরোইন, শর্করা এবং মাস শেষের বেতন।
— নাসিম নিকোলাস তালেব

 

খাই একটু গাছের পাতা,
তাই নিয়ে এত কথা।

—-রোকছি নয়ন

ধন্য তুমি গাজা,
তোমার জন্য আজ আমি ফকির হয়ে রাজা।

—-রোকছি নয়ন

গাজার নৌকা পাহাড়তলী যায়।

—-রোকছি নয়ন

গাঁজা নিয়ে ক্যাপশন

আমরা আমাদের সমাজের কিছু সংখ্যক মানুষকে অথবা আমাদের সমাজের যুবক যুবতীর কে সুন্দর ভাবে বাঁচিয়ে তোলার জন্য অথবা তাদের জীবনকে সুন্দর করে তোলার জন্য তাদেরকে আমাদের বিভিন্ন জ্ঞান প্রদান করা প্রয়োজন। আপনি যদি তাদের সামনে বিভিন্ন জ্ঞানমূলক কথাবার্তা বা আলোচনা করতে যান তাহলে অবশ্যই প্রথমে আপনাকে গাঁজা নিয়ে ক্যাপশন গুলো শেয়ার করতে হবে। যাতে তারা গাঁজা সেবন না করে এবং নিজের মস্তিষ্ককে দুর্বল করে না তুলে। সমাজকে এগিয়ে নিয়ে যেতে হলে অবশ্যই আপনার সুস্থ মস্তিষ্ক এবং সুন্দর বুদ্ধি এবং শিক্ষিত সমাজ প্রয়োজন। তবে শিক্ষিত সমাজ এবং সুন্দর বুদ্ধি নষ্ট করতে শুধুমাত্র গাঁজা সেবন করাই অর্থাৎ মাদক গ্রহণ করলেই সকল সমাজ ধ্বংস।

সব নেশার মূলে থাকে কিছু অব্যক্ত ব্যথার গল্প যা কেউ জানে না।
সংগৃহীত

যে রাজার রাণী নাই সে রাজায় গাজা খায়।

—-রোকছি নয়ন

সময় পেলে এস একদিন,
আমার শহরে।
গাঁজা খোর হওয়ার গল্প শোনাবো তোমায়।

—-রোকছি নয়ন

বাবা বলেছিল গাঁজা খাস না।
গাজা বলেছিল আরে বোকা আমি বাবা।

—-রোকছি নয়ন

গাঁজা নিয়ে কবিতা

বর্তমান সমাজের মানুষ যেভাবে গাজায় আসক্ত হয়ে গেছে তাই তো আমাদের দেশ এত অধঃপতনে গিয়েছে। তাই আপনি দেশকে রক্ষা করতে চাইলে এবং যুব সমাজকে রক্ষা করতে চাইলে মাঝেমধ্যেই গাঁজা নিয়ে কিছু কবিতা শেয়ার করতে পারেন অনলাইন প্লাটফর্মগুলোতে। আপনি যদি গাজা নিয়ে কিছু কবিতা শেয়ার করেন সকলের সামনে তাহলে সকলেই এই কবিতাগুলো সুন্দরভাবে দেখে বা আবৃত্তি দেখে মুগ্ধ হবে এবং তাদের ভুল বুঝতে পারে আপনাদের কথা মত ভালো পথে ফিরে আসতে পারে। এজন্য সাধারণত আমরা আপনাদের সামনে কিছু সংখ্যক কবিতা তুলে ধরলাম যে কবিতা গুলো আবৃত্তি করে আপনি আপনার সকল মানুষকে সুন্দর এবং সহজ পথে ফিরে আনতে পারেন।

নেশা হলো এক মারাত্মক ব্যাধী যার ইতি টানতে হলে আপনাকে হাসপাতাল কিংবা জেলে যেতেও হতে পারে।
— রাসেল ব্রান্ড

তোমার জন্য রাখা গোলাপ আজ শুকিয়েছে ডায়েরির ওই পাতায়।
আজও তোমার ভাবনা ভোলায় গাজারই পাতায়।

—-রোকছি নয়ন

মদ গাঁজাতেই হচ্ছে নেশা,
মাতছে মন প্রাণ।
সব প্রেমিকই সার্চে ধোয়া,
নিচ্ছে নিজেই জান।

—-রোকছি নয়ন

আমরা আমাদের প্রতিবেদনটি সাজিয়েছি যাতে আপনারা সুন্দর এবং ভালো একটি সমাজ গঠনের লক্ষ্যে কাজ করতে পারেন। সুন্দর সমাজ গঠনের জন্য সকলের সাথে আপনারা সুন্দর ভাবে কথাবার্তা বলে এবং তাদের সাথে এ ধরনের কিছু তথ্য বা শেয়ার করে আপনি তাদেরকে সৎ এবং সুন্দর পথে নিয়ে আসতে পারেন এবং তাদেরকে সমাজের উচ্চ স্থান জায়গা দিতে পারেন। সমাজকে ভালো রাখতে এবং শিক্ষিত করে তুলতে অবশ্যই আপনাদের মাদক থেকে দূরে থাকতে হবে এজন্যই আমরা আপনাদের সামনে বিভিন্ন তথ্য শেয়ার করলাম যে তথ্যগুলো শেয়ার করে আপনি সকলকেই নেশাগ্রস্থ বা মাদকগ্রস্ত থেকে দূরে রাখতে পারবেন। আমাদের প্রতিবেদনটি যদি আপনার ভালো লাগে অবশ্যই কমেন্ট করে জানাবেন এবং আপনার এলাকার মাদকগ্রস্থ মানুষের সম্পর্কে কিছু তথ্য আমাদের সাথে শেয়ার করতে পারেন।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Scroll to Top