কেয়ামত নিয়ে উক্তি | কেয়ামত নিয়ে হাদিস | কেয়ামত নিয়ে স্ট্যাটাস

প্রিয় বন্ধুগণ তারা মুসলমান রয়েছেন শুধু তাদের জন্যই তৈরি করলাম আজকের এই আর্টিকেলটি।আমাদের আজকের এই আর্টিকেলটি কেয়ামত সম্পর্কে,তারা কেয়ামত সম্পর্কে উক্তি স্ট্যাটাস ও ক্যাপশন গুলো জানার আগ্রহী তারা যদি আমাদের এই পোস্টটি দেখে থাকেন তাহলে আশা করা যায় অনেক কিছু জানতে পারবেন।অনেকে এগুলো সংগ্রহ করার জন্য অনলাইন প্লাটফর্ম গুলোতে অনুসন্ধান করে থাকেন, হয়তো নতুন কোন স্ট্যাটাস গুলো না পাওয়ার কারণে আপনি আপনার ফেসবুকের ওয়ালে রাখতে পারেন না। তাই আমাদের এই পোস্টটি যদি খুব মনোযোগ সহকারে দেখে থাকেন তাহলে আশা করা যায় এগুলো সংগ্রহ করে আপনার নিজের ফেসবুক প্রোফাইলে রাখতে পারবেন।আমদের কেয়ামত সম্পর্কে অবশ্যই বিশ্বাস অর্জন করতে হবে কেননা কেয়ামতের উপর বিশ্বাস না থাকলে আপনারা পূর্ণাঙ্গভাবে ঈমানদার হতে পারবেন না।তাইতো অনেকে আছেন তারা অনলাইন প্লাটফর্ম গুলোতে কেয়ামত সম্পর্কে উক্তি স্ট্যাটাস ও ক্যাপশন গুলো অনুসন্ধান করে থাকেন,তারা এগুলো সংগ্রহ করার আগ্রহী বা সংগ্রহ করতে যান তাদের জন্য আজকে আমাদের এই আর্টিকেলটি।এ গুলো সংগ্রহ করার জন্য আপনাদের এ পোস্টটি মনোযোগ সহকারে দেখতে পারেন।

প্রতিটি মুসলমানদেরকে কেয়ামতের দিন কেয়ামতের মাঠে উপস্থিত হতে হবে,ঐদিন সবারে বিচার সম্পাদন করবেন মহান আল্লাহ তাহালা নিজেই।তারা দুনিয়াতে ভালো কাজকর্ম করবেন তাদের জন্য ঐদিন বিচার সম্পাদন অনেক সহজ হয়ে যাবে, তাইতো ওই দিন ভালোভাবে বাচার জন্য আপনাদের ইসলামের পাঁচটি ভিত্তি উপর আস্তা স্থাপন করতে হবে।আর ওই পাঁচটি বৃত্তির উপর একটি হলো কেয়ামত।তাইতো কেয়ামত সম্পর্কে বিস্তারিতভাবে জানার জন্য সাহায্য করতে পারে আমাদের আজকের এই পোস্টটি। তাই তো কেয়ামত সম্পর্কে নতুন নতুন ও আপডেট কিছু তথ্য নিয়ে তৈরি করলাম এই পোস্টটি।যদি এই পোস্টটি মনোযোগ সহকারে দেখে থাকেন তাহলে আশা করা যায় কেয়ামত সম্পর্কে বিস্তারিতভাবে কিছু তথ্য সংগ্রহ করতে পারবেন।ইসলাম ধর্মই শান্তিপূর্ণ একটি ধর্ম বলে বিবেচিত, কেননা এই ধর্মে সব সময় শান্তির পথে আহ্বান করে গেছেন অনেক জ্ঞানী বর্গ ব্যক্তিগণ।যে মুসলমান ব্যক্তিগণ দুনিয়াতে নিজের ব্যক্তিগত কাজের পাশাপাশি ইসলাম ধর্মের বিধি বিধান ও নিষেধ গুলোকে মেনে চলার চেষ্টা করে আশা করা যায় তাদের কেয়ামতের দিনটি অনেক সুন্দর হতে পারে।তাইতো কেয়ামতের দিনটি সুন্দর ও আকর্ষণীয় করে তোলার জন্য আল্লাহতালার দেওয়া বিধিবিধান গুলো মেনে চলার চেষ্টা করবেন। আর ইসলামিক উক্তি স্ট্যাটাস ও ক্যাপশন গুলো সংগ্রহ করে সবাইকে জানানোর চেষ্টা করবেন। তাই আজকের বিষয়টি কেয়ামত নিয়ে তাই তো আমরা কেয়ামত বিষয়ে উক্তি স্ট্যাটাস ও ক্যাপশনগুলো তুলে ধরার চেষ্টা করব খুব সহজে এগুলো সংগ্রহ করতে পারবেন আপনারা।

কেয়ামত নিয়ে উক্তি

ইসলাম কেন্দ্রিক এর ওপর ভিত্তি করে প্রথমে কেয়ামতের উপর বিশ্বাস স্থাপন করতে হবে, কেননা সবাইকে কেয়ামতের মাঠে একদিন একত্র হতে হবে। তাইতো এ বিষয়ে সবাইকে কিছু কথা জানানো উচিত, তাই তো আজকে আমরা কেয়ামত বিষয়ের নতুন নতুন কিছু উক্তিগুলো শেয়ার করবো আপনাদের সামনে।আমাদের সমাজে অনেকে আছে তারা এগুলো সম্পর্কে জ্ঞান অর্জন করার জন্য অনুসন্ধান করে, আমাদের এ পোস্টটি যদি মনোযোগ সহকারে দেখে থাকেন তাহলে এই উক্তিগুলো সংগ্রহ করে অর্থাৎ ফেসবুকে আপলোড করতে পারবেন। আজকাল সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোতে কেয়ামত সম্পর্কে অনেক উক্তিগুলো পাওয়া যায়।আজকে তাদের থেকে উন্নতমানের কিছু উক্তিগুলো তুলে ধরবো তাই এগুলো সংগ্রহ করার জন্য আমাদের এ পোস্টটি আপনাদের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। জান্নাত একটি শান্তিপূর্ণ জায়গা এই জায়গায় প্রবেশ করতে হলে দুনিয়াতে ভালো ও নেককার বান্দা হয়ে উঠতে হবে, যদি দুনিয়াতে নেককার বান্দা হয়ে উঠতে পারেন তাহলে কেয়ামতের মাঠটা আপনার জন্য সহজ হয়ে উঠবে, তাইতো এ বিষয়ে সাহায্য করতে পারে আমাদের এ উক্তিগুলো।

রমজান জাহান্নাম হতে বেঁচে যাওয়ার ঢাল।
–আল হাদিস

 

শয়তানের অনুসরণকারীর আশ্রয়স্থল হলো জাহান্নাম।
–সূরা আল-হিজরঃ ৪২

 

নিঃসন্দেহে মুনাফিকরা জাহান্নামের সর্বনিম্ন স্তরে থাকবে।
–সূরা নিসাঃ ১৪৫

কবর কারো জন্য হবে জান্নাতের বাগান আর কারো জন্য হবে দোযখের গর্ত।
–আল হাদীস

কেয়ামত নিয়ে স্ট্যাটাস

জান্নাত এমন একটি জায়গা যে জায়গায় দুঃখ কষ্ট কিছুই নেই।জান্নাতের মহান আল্লাহতালার অসীম রহমত নাযিল হয় সবসময়। তাইতো সবাই জান্নাতে যাওয়ার জন্য অনেক আশা করে দুনিয়াতে।তাইতো জান্নাতে প্রবেশ করতে হলে প্রথমে কেয়ামত থেকে শান্তিপূর্ণ ভাবে রক্ষা পেতে হবে।দুনিয়াতে সব সময় আল্লাহতায়ালার দেওয়ার বিধি বিধান গুলো মেনে চলার চেষ্টা করতে হবে। আজকে আমরা কেয়ামত নিয়ে সুন্দর কিছু স্ট্যাটাস গুলো তুলে ধরবো সেগুলো যদি আপনারা সংগ্রহ করতে পারেন তাহলে আশা করা যায় কেয়ামত সম্পর্কে কিছু গুরুত্বপূর্ণ কথা জানতে পারবেন। ইসলাম প্রিয় প্রতিটি ব্যক্তিগণ সবাই তার জীবনকে ইহকাল ও পরকালে শান্তিপূর্ণ করার জন্য বিভিন্ন ধরনের নির্দেশনা গুলো অনুসরণ করে।আপনার জীবনকে সুন্দরভাবে গড়ে তোলার জন্য আপনার ব্যক্তিগত কাজের পাশাপাশি ইসলামের ছোট ছোট দিকনির্দেশনা গুলো অনুসরণ করতে পারবেন। আর এই ছোট ছোট ইসলামের নির্দেশনা গুলো জন্য সাহায্য করতে পারে আমাদের আজকের এই পোস্টটি। তাই এই পোস্টটি আপনার জীবনে খুবই গুরুত্বপূর্ণ হয়ে উঠতে পারে,তাই এই পোস্টটি খুব মনোযোগ সহকারে দেখবেন। তাহলে কেয়াম সম্পর্কে অনেক গুরুত্বপূর্ণ কিছু কথা সংগ্রহ করতে পারবেন খুব সহজেই।

মিথ্যাবাদীদের জন্য রয়েছে উত্তপ্ত পানির বাসস্থান এবং জাহান্নামের আগুন।
–সূরা ওয়াকিয়াহঃ ৯২

 

যে মন্দভাবে আয় করে এবং তার পাপ তাকে ঘিরে রাখে – তারাই জাহান্নামী; তারা সেখানে চিরকাল থাকবে।
–সূরা বাকারাঃ ৮১

 

বেহেশতী ব্যক্তি দুনিয়ায় দূর্বল ও অসহায় হবে আর জাহান্নামীরা হবে অবাধ্য, কলহপ্রিয় ও অহংকারী।
–বুখারীঃ ৬২০২

কেয়ামত নিয়ে ক্যাপশন

কেয়ামত ভয়াবহতা সম্পর্কে হয়তো আপনাদের অনেক কিছু জানার হয়েছে, তারপরও অনেকে আছে তারা কেয়ামত বিষয়ে কিছু ক্যাপশন গুলো সংগ্রহ করতে চান। আমাদের এই ক্যাপশন গুলোতে আমরা ইসলামের কিন্তু হাদিস সম্পর্কে কিছু ক্যাপশন উল্লেখ করব।পৃথিবীতে ইসলাম ধর্ম হলো একটি শান্তিপূর্ণ ধর্ম তাইতো এ ধর্মকে আরও শান্তিময় করে তোলার জন্য আপনাকে ইসলামের পাঁচটি স্তর এর উপর বিশ্বাস স্থাপন রাখতে হবে আর পাঁচটির উপর একটি হলো কেয়ামত। তাইতো সকল মুসলমানগন কেয়ামতের উপর বিশ্বাস স্থাপন করে এবং কেয়ামতের বিষয়গুলো জানার আগ্রহে প্রকাশ করে থাকেন। তারা এগুলো জানার আগ্রহী প্রকাশ করে থাকেন তাদের জন্য তৈরি করলাম এই পোস্টটি বা এই ক্যাপশনগুলো সংগ্রহ করে সবার সাথে শেয়ার করলে সবাই কেয়ামতের উপর বিশেষ আস্তা স্থাপন রাখতে পারবে। তাই এগুলো সংগ্রহ করার জন্য আমাদের এই পোস্টটি লক্ষ্য রাখতে পারেন।অনেকে এগুলো সংগ্রহ করার জন্য অনলাইন প্লাটফর্ম গুলোতে অনুসন্ধান করে থাকেন, আমাদের আজকের নতুন নতুন কিছু ক্যাপশন গুলো তুলে ধরছি, তাই খুব সহজেই এগুলো সংগ্রহ করতে পারবেন।

যারা কুফরী করবে ও আমার আয়াতসমূহকে স্বীকার করবে না, তারাই জাহান্নামের অধিবাসী। তারা সেখানে অনন্তকাল থাকবে।

–সূরা বাকারাঃ ৩৯

যারা অবিশ্বাস করে, তাদের বলো, “তোমরা পরাজিত হবে এবং জাহান্নামের দিকে একত্রিত হবে এবং এটাই নিকৃষ্ট আবাস।

–সূরা ইমরানঃ ১২

প্রিয় বন্ধুগণ আমাদের এ পোস্টটি হয়তো ভালোভাবে দেখেছেন, যদি এ পোস্টটি ভালোভাবে দেখে থাকেন তাহলে আশা করা যায় অনেক ভালো লেগেছে কেননা ভালোলাগার জন্যই নিত্য নতুন পোস্ট গুলো আপনাদের সামনে উপস্থাপন করে থাকি। অনেকে আছেন তারা এরকম পোস্ট গুলো অনলাইন প্লাটফর্ম গুলোতে অনুসন্ধান করে থাকেন বিশেষ করে ইসলাম ধর্মের ব্যক্তিগণ। আমাদের আজকের বিষয়টি কেয়ামত নিয়ে তাইতো সুন্দরভাবে কেয়ামত বিষয়ে কিছু কথা তুলে ধরেছি এ পোস্টটিতে। আমাদের এই পোস্টটি যদি আপনাদের কাজে ভালো লেগে থাকে তাহলে আপনার আশপাশের বন্ধু বান্ধব আত্মীয় স্বজনদের সাথে শেয়ার করবেন, তারাও হয়তো অনলাইন প্লাটফর্মগুলোতে এরকম উক্তি স্ট্যাটাস ক্যাপশন গুলো অনুসন্ধান করে থাকে তাই তাদের সাথে এই পোস্টটি শেয়ার করলে সহজেই তারা এ পোস্টটি দেখতে পারবেন। আশা করা যায় এ পোস্টটি আপনাদের অনেক উপকারে আসতে পারে।কেয়ামত সম্পর্কে অনেক সুন্দর সুন্দর উক্তি স্ট্যাটাস ও ক্যাপশন গুলো তুলে ধরেছি যদি এই পোস্টটি আপনাদের কাছে ভালো লেগে থাকে আমাদেরকে কমেন্ট করে জানাতে ভুলবেন না এবং কোন মতামত থাকলে তাও জানাবেন।আপনাদের মূল্যবান সময়টি ব্যয় করে আমাদের পুরো প্রতিবেদনটি মনোযোগ সহকারে দেখার জন্য ধন্যবাদ।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Scroll to Top