ও নেগেটিভ রক্তের দাম | বি নেগেটিভ রক্তের বৈশিষ্ট্য

প্রিয় ভিজিটর, আমরা রক্তের মাধ্যমে অক্সিজেন গ্রহণ করি এবং কার্বন-ডাই-অক্সাইড ত্যাগ করার চেষ্টা করি। যদিও মানুষের দেহে রক্তের প্রয়োজন খুব বেশি তাই আমরা অনেকেই আছে যারা মুমূর্ষ রোগীদের ক্ষেত্রে বা মুমূর্ষ রোগীর চিকিৎসার ক্ষেত্রে বিভিন্ন প্রয়োজনে বিভিন্ন গ্রুপের রক্ত প্রয়োজন হয়ে থাকে। তখন আমরা বিভিন্ন সংস্থাগুলোর কাছ থেকে বা রক্তদান কেন্দ্রগুলো থেকে রক্ত সংগ্রহ করার চেষ্টা করি। যেহেতু বাংলাদেশের স্বেচ্ছায় রক্তদানকারী কিছু সংগঠন রয়েছে যে সংগঠনগুলোর মাধ্যমে রক্ত সংগ্রহ করা যায় তবে অনেক সময় জরুরি প্রয়োজনে এই সংগঠনগুলোর সাথে যোগাযোগ করার প্রয়োজন হয় না বা যোগাযোগ করতে পারি না। তখন আমরা সরাসরি ব্লাড ব্যাংক গুলোতে রক্ত সংগ্রহ করার চেষ্টা করি অর্থাৎ রক্ত ক্রয় করার চেষ্টা করি।

আপনারা যারা ব্লাড ব্যাংকগুলোতে রক্ত সংগ্রহ করার চেষ্টা করেন বাজে ব্লাড ব্যাংকগুলোর রক্ত বিক্রি করে সেখান থেকে রক্ত কিনে আনতে চাচ্ছেন তারের অবশ্যই রক্তের দাম সম্পর্কে জানা প্রয়োজন। অথবা সমাজের কিছু মানুষ রয়েছেন যারা রক্ত সংগ্রহ করতে পছন্দ করেন বা রক্ত কিনতে পছন্দ করেন তাদের জন্য জানা প্রয়োজন বা রক্ত সম্পর্কে জানা প্রয়োজন যে তারা কতটুকু রক্তের দাম কত এই তালিকা সম্পর্কে। তাই আমরা আপনাদের সামনে তুলে ধরার চেষ্টা করলাম ও নেগেটিভ রক্তের দাম কত সেই তালিকাটি সম্পর্কে।

ও নেগেটিভ রক্তের দাম

আমরা উপরে সুন্দর ভাবে তুলে ধরার চেষ্টা করলাম রক্তের গ্রুপের তালিকা গুলো। সেই সাথে ও নেগেটিভ রক্তের দামের তালিকা গুলো সুন্দরভাবে তুলে ধরার চেষ্টা করলাম আশা করি আপনারা আমাদের এই প্রতিবেদনটি থেকে খুব সুন্দর ভাবে সংগ্রহ করতে পারবেন ও নেগেটিভ এক ব্যাগ রক্তের দাম কত সেই তালিকাটি। আমাদের প্রতিবেদনটি থেকে তালিকাটি সংগ্রহ করতে পারবেন এবং উপকৃত হতে পারবেন অবশ্যই এখান থেকে আপনার জ্ঞান অর্জন হবে এবং এই জ্ঞান বিকশিত করতে অর্থাৎ আপনার জ্ঞান মানুষের সাথে শেয়ার করতে অবশ্যই আমাদের প্রতিবেদনটি শেয়ার করুন এবং সকলকে জানার সুযোগ করে দিবেন।

ও পজিটিভ এক ব্যাগ রক্তের দাম ১৫০০-১৭০০ টাকা

#প্লাজমা

(মানে রক্ত হতে আলাদা করা শুধু রক্তরস)

দাম: ৭০০-৮০০ টাকা (প্রতি ইউনিট)

#পি,আর, বি,সি

( রক্ত হতে আলাদা করা শুধু লোহিত রক্তকনিকা)

দাম: ৭০০-৮০০ টাকা (প্রতি ইউনিট)

হোল ব্লাড:

(মানে যেটা হতে রক্তের কোনো কনিকা আলাদা করা হয়নি)

দাম : ৮০০-৯০০ টাকা (প্রতি ইউনিট)

#প্লাটিলেট

( রক্ত হতে আলাদা করা শুধু অণুচক্রিকা)

দাম: ১০০০-১২০০ টাকা (প্রতি ইউনিট)

বাংলাদেশের গ্রুপ ভিত্তিক রক্তের হার

যেহেতু বাংলাদেশের সড়ক দুর্ঘটনায় বা বিভিন্ন মর্মার্থিক রোগীগুলোর ক্ষেত্রে বিভিন্ন প্রয়োজনে চিকিৎসার জন্য রক্তের প্রয়োজন হয়। তাই বিভিন্ন গ্রুপের রক্তের গ্রুপ অনুযায়ী তাদের রক্তদান করতে হয় এজন্য অনেকেই তার রোগীর গ্রুপ অনুযায়ী রক্ত সংগ্রহ করার চেষ্টা করেন বা অনুসন্ধান করেন। তবে সাধারণ মানুষদেরও অবশ্যই জানা প্রয়োজন যে কোন গ্রুপের রক্তের হার কেমন এবং বাংলাদেশে কোন গ্রুপের রক্ত বেশি পাওয়া যায় সেই তালিকাগুলো সম্পর্কে। বাংলাদেশের কোন রক্ত গুলো বেশি পাওয়া যায় এবং কোন রক্তের চাহিদা খুব বেশি তবে রক্ত সীমিত এ ধরনের তথ্যগুলো অবশ্যই আপনাদের জানা প্রয়োজন তাই আমরা আপনাদের সামনে সুন্দরভাবে তুলে ধরলাম গ্রুপ ভিত্তিক রক্তের হারগুলো।

আপনারা যারা রক্তের গ্রুপ সম্পর্কে জানার আগ্রহ প্রকাশ করেছেন বা রক্তের দাম সম্পর্কে জানার আগ্রহ প্রকাশ করেছেন। তারা ইতিপূর্বেই আমাদের প্রতিবেদনটি মনোযোগ সহকারে পড়লে অবশ্যই জানতে পারবেন কোন গ্রুপের রক্তের দাম কত। আমরা সুন্দরভাবে তুলে ধরার চেষ্টা করছি ও নেগেটিভ রক্তের দামের তালিকা গুলো এবং সুন্দরভাবে তুলে ধরার চেষ্টা করছি সকল তথ্যগুলো। প্রতিবেদনটি অবশ্যই আপনাদের ভালো লাগবে এবং জ্ঞান অর্জন করতে সাহায্য করবে। ও নেগেটিভ রক্ত সম্পর্কে যদি আপনাদের কোন মতামত থাকে বা কোন প্রশ্ন থাকে অবশ্যই সেটি আমাদের সামনে তুলে ধরতে পারেন।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Scroll to Top